“আশীর্বাদ” ছবি থেকে সরে দাড়ালেন ইমন সাহা

বিনোদন ডেস্ক, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: আশীর্বাদ ছবি থেকে সরে দাড়ালেন সাত বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া সংগীত পরিচালক ইমন সাহা!
সরকারি অনুদানে নির্মাণাধীন “আশীর্বাদ” ছবির সংগীত পরিচালনা থেকে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছেন সাত বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া সংগীত পরিচালক ইমন সাহা। তিনি গেলো ২৬ ডিসেম্বর আমেরিকার ফ্লোরিডা থেকে এই প্রতিবেদককে মেসেঞ্জারে এই সংক্রান্ত একটি চিঠিতে এই তথ্য জানিয়েছেন। পাঠকদের জন্যে ইমন সাহার সেই চিঠিটি তুলে ধরা হলো।

আমি সংগীত পরিচালক ইমন সাহা। গেলো কয়েকদিন ধরে আমি সামাজিক মাধ্যমে লক্ষ্য করছি – কিছু অনলাইন পোর্টাল ও সংবাদমাধ্যমে একটি অপ্রীতিকর সংবাদে আমার নামকে সংযুক্ত করা হচ্ছে। ওই সব সংবাদ অনুযায়ী চলচ্চিত্র প্রযোজক এমডি ইকবালের অভিযোগ – আমি তার সাবেক স্ত্রী জেনিফার ফেরদৌস এর কথা অনুযায়ী জনাব ইকবালের কাছে ২০ লক্ষ টাকা দাবী করেছি। আমি বলবো – এই অভিযোগটি সম্পুর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। প্রযোজক ইকবাল সাহেব আরও বলছেন, তার সাবেক স্ত্রী জেনিফার ফেরদৌস এর সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। এই প্রসঙ্গে আমি বলবো – গেলো চার বছর যাবত আমি আমার পরিবারসহ যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছি। যদিও কাজের প্রয়োজনে প্রায় প্রতি বছরই আমাকে বাংলাদেশে আসতে হয়। কিন্তু বর্তমানের এই COVID পরিস্থিতির কারনে আমি গেলো এক বছরের বেশি সময় ধরে দেশে আসতে পারছিনা। আমার জানা মতে জনাবা জেনিফার “আশীর্বাদ” চলচ্চিত্রের প্রযোজক ও কাহিনীকার। যেহেতু আমি পেশাদার সংগীত পরিচালক, তাই আশীর্বাদ ছবির পরিচালক মুস্তাফিজুর রহমান মানিকের প্রস্তাবে আমি “আশীর্বাদ” চলচ্চিত্রের সবকটি গান ও আবহ সংগীত পরিচালনা করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হই। আর এসব কিছুই সম্পাদন হয়েছে ভার্চুয়ালি। পেশাগত কাজের স্বার্থে এই ছবির পরিচালক, প্রযোজক, কন্ঠ শিল্পী, গীতিকার ও অন্যান্য কলাকুশলীর সঙ্গে আমার প্রায়ই কথা বলতে হয়েছে। জনাবা জেনিফারের সঙ্গেও আমার এই ছবির কাজ নিয়ে কথা হয়েছে। কিন্তু জীবনে কোনদিন তার সঙ্গে আমার সামনা সামনি দেখা হয়নি। তার সঙ্গে আমার যতবারই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাহায্যে কথা হয়েছে, সেটা এই চলচ্চিত্রের কাজকে কেন্দ্র করেই। তাই আমি বলবো – জনাব ইকবালের এই অভিযোগ সম্পুর্ণ ভিত্তিহীন।

আশীর্বাদ ছবি থেকে ইমন সাহার সরে আসার ঘোষণাএই চিঠিতে ইমন আরও লিখেছেন – এই খবর আমার এবং আমার পরিবারের জন্য খুবই বিব্রতকর। আমি এই যাবতকাল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক সাত বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হয়েছি। দেশের চলচ্চিত্রের উন্নতির স্বার্থে আমি নিজ উদ্যোগে দেশের বাইরে ভারতের চেন্নাইতে এ আর রহমান মিউজিক কলেজে এবং সুদূর আমেরিকায় সংগীত নিয়ে পডাশোনা করেছি এবং এখনও করছি। এই ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার আমার, আমার পরিবার, আমার সংগীত পরিচালনা ক্যারিয়ার এবং দেশের চলচ্চিত্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে। পরিশেষে আমি এই বলতে চাই – পরিচালক মুস্তাফিজুর রহমান মানিক এবং প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস এর কাছে আমার আন্তরিক অনুরোধ “আশীর্বাদ” চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালনার দায়িত্ব আমি পালন করতে অপারগতা প্রকাশ করছি। এই ছবির সংগীত পরিচালনার কাজ থেকে আমি অব্যাহতি চাইছি। আশা করছি – আমার ব্যক্তিগত, পারিবারিক এবং পেশাগত সম্মান রক্ষার্থে এই বিষয়ে আপনারা ভুল বুঝবেন না। “আশীর্বাদ” ছবি এবং ছবির সঙ্গে জড়িত সকলের জন্যে শুভ কামনা।

ইমন সাহা
২৬/১২/২০২০
ফ্লোরিডা, যুক্তরাষ্ট্র।

সূত্র: ছায়াছন্দ
*************

About Saimur Rahman

Check Also

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল দলে বহিরাগতদের হুঁশিয়ার করলেন

সিরাজগঞ্জে মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় দলে বহিরাগতদের হুঁশিয়ার করেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *