২১ আগস্ট ২০০৪ সালের ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা দিবস

২০০৪ সালের ২১আগস্ট আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে সন্ত্রাস এর বিরুদ্ধে শান্তির সমাবেশে বক্তব্য রাখছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। বিকেল যখন ৫ঃ২৫ ঘটিকা, ঠিক তখন আওয়ামীলীগ সভাপতি শেখ হাসিনা কে ও জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা পরিচালনা করেন তৎকালীন বিএনপি-জামাত জোট সরকার।

গ্রেনেড হামলা দিবস ও সকল শহীদদের স্মরণে শহীদ ব্যাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ভাই ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল ভাই এর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইনুদ্দিন রানা,ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা,সহ সভাপতি আহাম্মদ উল্লাহ মধু,সোহরাব হোসেন স্বপন,আনোয়ার ইকবাল সান্টু,হারুন -অর- রশিদ, যুগ্ম সম্পাদক ওমর ফারুক,
ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু,মোহাম্মদ মাকসুদুর রহমান, সম্পাদক মন্ডলির সদস্য, আরমান হক বাবু, মোঃ আবুল কাশেম খা,গোঁফরান গাজী,খন্দকার আরিফুজ্জামান, আলতাফ হোসেন,শহিদুল ইসলাম হৃদয় সহ মহানগর যুবলীগের নেতৃবৃন্দ পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

আল্লাহ রাব্বুল আলামিন প্রিয়নেত্রী রক্ষা করেন। নারী নেত্রী আইভি রহমান,মোস্তাক আহমেদ সেন্টু সহ ২৪ জন নেতাকর্মী শহীদ হন। গুরুতর আহত হন প্রিয়নেত্রী সহ দলের অসংখ্য নেতাকর্মী । গ্রেনেড হামলার স্প্রিনটাল এখনো শরীরে বহন করে মৃত্যু যন্ত্রণায় দিন কাটাচ্ছে দলের দুঃসময়ের অসংখ্য নেতাকর্মী। হামলাকারী ও ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি………

About Saimur Rahman

Check Also

উদ্যোক্তাদের জন্য এর নতুন প্লাটর্ফম “ঢাবাং ডট কম”

নিউজ ডেস্ক, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: গতকাল ২৪শে অক্টোবর শনিবার রাজধানীর রামপুরা বনশ্রীতে একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট-এ ঢাবাং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *